izmir kizlar
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam inönü üniversitesi taban puanları

লেনদেনের সময় আটকে গেল চালান, ২০ হাজার ইয়াবাসহ ডিবি পুলিশের হাতে আটক-১

received_1116260895414719.jpeg

বিশেষ প্রতিবেদক।।

কক্সবাজারের রামুতে গোপন সুত্রের ভিত্তিতে ডিবি পুলিশ ২০ হাজার ইয়াবা সহ এক যুবককে আটক করেছে। আটক আলমগীর (২৬) রামু জোয়ারিয়ানালা ইউপির উত্তর মিঠাছড়ি চা বাগান এলাকার চৌধুরীপাড়ার বজল আহমদের ছেলে।

সোমবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে দিকে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে নাইক্ষ্যংছড়িগামী রাস্তার সংযোগ স্থলে জনৈক মঞ্জুর আলমের দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

ডিবি অফিস সুত্রে জানা যায়, কক্সবাজার রামু থানা এলাকায় বিশেষ অভিযান ডিউটি কালে দুপুর ১২ টার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে নাইক্ষ্যংছড়ি গামী রাস্তার সংযোগ স্থলে জনৈক মঞ্জুর আলমের দোকানের সামনে কিছুক্ষণের মধ্যে ইয়াবা আদান-প্রদান করার বিষয়টি জানা যায়। উক্ত স্থানে পৌঁছে ৩জন লোককে পরস্পরের মধ্যে ১টি সাদা প্লাস্টিকের ব্যাগ হস্তান্তর করার সময় সন্দেহ হয়। তাৎক্ষণিক সঙ্গীয় অফিসার ফোর্সসহ তাহাদেরকে গ্রেফতারের জন্য ধাওয়া করি। পালানোর সময় ইয়াবা ব্যবসায়ীদের সাথে ডিবি পুলিশের গোলাগুলি হয়। একপর্যায়ে ২ জন পালিয়ে যেতে সক্ষম হলেও একজনকে ২০ হাজার ইয়াবাসহ আটক করা হয়।

আরো জানা যায়, জব্দকৃত ইয়াবার বিষয়ে গ্রেফতারকৃত আসামীকে জিজ্ঞাসাবাদে পলাতক আসামীদের নাম স্বীকার করে। তারা হলো- আবুল হাশেম(২৫), গরু বাজার, উখিয়া এবং মাহমুদুর রহমান দাছরা(৪০), রোহিঙ্গা ক্যাম্প,উখিয়া ও অজ্ঞাতনামা ১জন।

এসময় অভিযানে উপস্থিত ছিলেন, এসআই (নিঃ) রাজীব কুমার সূত্রধর, সংগীয় পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) রূপল চন্দ্র দাস, পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) মানস বড়ুয়া, পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) এস এম মিজানুর রহমন, এএসআই (নিঃ) মোঃ সাজিদুল ইসলামসহ সঙ্গীয়ফোর্স।

কক্সবাজার জেলা গোয়েন্দা শাখার পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) মানস বড়ুয়া জানান, ইয়াবা হস্তান্তরের সময় মাদক কারবারীদের সাথে আমাদের গোলাগুলি হয়। অন্যরা পালিয়ে গেলেও ইয়াবাসহ একজনকে আটক করি। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অজ্ঞাতনামা একজন,পলাতক দুইজনসহ ৪ জনকে আসামী করে মামলা রুজু করা হয়। এ বিষয়ে ডিবি শাখায় একটি সাধারণ ডায়রী করা হয়, যার নং-৩৫, তারিখ- ০৬/০৪/২০২০ইং।

Top