izmir kizlar
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam inönü üniversitesi taban puanları

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি -শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী

Nowfal_BG20200407194845.jpg

সিএনটি ডেস্ক।।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি বলে জানিয়েছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী।

সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটির আওতায় আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি রয়েছে। কিন্তু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে অনেকেই অনুমান নির্ভর তথ্য দিয়ে বিভ্রান্ত করছেন বলে দাবি করেছেন উপমন্ত্রী।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) ফেসবুকে এক স্ট্যাটাসে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল জানান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি। সরকার নির্দেশিত ছুটি এখনও চলছে। দয়া করে বিভ্রান্ত হবেন না, অনুমান নির্ভর তথ্য বিশ্বাস করবেন না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা সংক্রান্ত যেকোনো সিদ্ধান্ত আমরা আনুষ্ঠানিকভাবেই জানাবো।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটি আগামী ১৩ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখের ছুটিও সাধারণ ছুটির মধ্যে পড়বে।

এর আগে সাধারণ ছুটি ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল এবং পরে ৫ থেকে ৯ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছিল। আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর ছুটি ১৮ থেকে ৩১ মার্চ এবং পরে ৯ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানো হয়।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটিও আমাগী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত। তবে স্থগিত থাকা এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে এখনই কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়া যাচ্ছে না।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব বলেন, সাধারণ ছুটি সব প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হয়। অর্থাৎ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও এ ছুটির আওতায় থাকবে। আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও বন্ধ থাকবে।

২০২০ শিক্ষাবর্ষের ছুটির তালিকা ও শিক্ষাপঞ্জিতে সরকারি মাধ্যমিক ও নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে পবিত্র রমজান, মে দিবস, বুদ্ধ পূর্ণিমা, বৈশাখী, পূর্ণিমা, শবে-ই-কদর, জুমাতুল বিদা ও ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষ্যে আগামী ২৫ এপ্রিল থেকে ৩০ মে ৩১ দিন ছুটি রয়েছে।

আর এসব উপলক্ষ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আগমী ২৫ এপ্রিল থেকে ২৮ মে পর্যন্ত ছুটি রয়েছে ৩০ দিন।

করোনা ভাইরাসের কারণে ছুটি ঘোষণা করা হলেও দিন দিন এর সংক্রমণ বাড়ছে। এ পরিস্থিতিতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি রোজা ও ঈদের ছুটির সঙ্গে সংযুক্ত হবে বলে বলেও আভাস পাওয়া গেছে সরকারের বিভিন্ন পর্যায় থেকেই।

Top