izmir kizlar
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam inönü üniversitesi taban puanları

সিনহা হত্যা মামলাঃ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ আসামী এখন কক্সবাজারের র‍্যাব কার্যালয়ে

FB_IMG_1597381249495.jpg

মো.শাহাদত হোছাইন।।

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মো. রাশেদ খানকে গুলি করে হত্যার মামলায় আত্মসম্পর্ণ করা চার পুলিশ সদস্য এবং ওই ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলার তিন সাক্ষীকে ৭ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে র‌্যাবের একটি টিম।

১৪ আগষ্ট সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে র‌্যাবের একটি টিম কক্সবাজার জেলা কারাগার থেকে আসামীদের রিমান্ডের জন্য নিয়ে যায়। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্ণেল আশিক বিল্লাহ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

কক্সবাজার জেলা কারাগারের সুপার মোহাম্মদ মোকাম্মেল হোসেন জানান, অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যা মামলায় আটককৃত আসামীদের মধ্যে ৭ আসামীকে আজ সকাল ১০ টার দিকে র‌্যাব রিমান্ডের জন্য তাদের কার্যালয়ে নিয়ে যায়।

যাদের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে তারা হলেন, কনস্টেবল সাফানুর করিম, কনস্টেবল কামাল হোসেন, কনস্টেবল আবদুল্লাহ আল মামুন ও এএসআই লিটন মিয়া, পুলিশ মামলার সাক্ষী মো. নুরুল আমিন, মো. নেজামুদ্দিন ও মোহাম্মদ আয়াজ।

এদিকে, এই চার আসামিসহ সাতজন পুলিশ সদস্য গত ৬ অগাস্ট আদালতে আত্মসমর্পণ করলে টেকনাফ থানার বরখাস্ত ওসি প্রদীপ কুমার দাশ, বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক লিয়াকত আলি এবং এসআই নন্দ দুলাল রক্ষিতকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে সাত দিনের রিমান্ডে পাঠিয়ে ছিলেন বিচারক। আজ তাদেরকে কারাগার হতে রিমান্ডের জন্য নিয়ে গেছে তদন্তকারী টীম।

জানা গেছে, গত ৩১ জুলাই রাতে টেকনাফের বাহারছড়া চেকপোস্টে তল্লাশির সময় পুলিশের গুলিতে নিহত হন সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। ওই সময় তার গাড়িতে সিফাত ছিলেন। সিনহা নিহতের ঘটনায় এবং গাড়ি থেকে মাদক উদ্ধারের অভিযোগে টেকনাফ থানায় দু’টি মামলা করে পুলিশ, এতে সিনহা এবং তার সঙ্গে থাকা সিফাতকে আসামি করা হয়। আর তারা যেখানে থেকে কাজ করছিলেন সেই নীলিমা রিসোর্ট থেকে শিপ্রাকে গ্রেপ্তার করার সময় মাদক পাওয়া যায় অভিযোগ করে তার বিরুদ্ধে রামু থানায় আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়। এর মধ্যে সিনহা নিহতের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় নুরুল আমিন,নেজামুদ্দিন ও আয়াজকে সাক্ষী করা হয়েছিল।

Top