izmir kizlar
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam inönü üniversitesi taban puanları

মামলা কমাতে প্রত্যেক আইনজীবীকে দায়িত্বশীল হিসেবে ভুমিকা রাখতে হবে-কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ

IMG_20201107_182137.jpg

মো.শাহাদত হোছাইন।।

৮শ মার্ডার কেইস, ৮ হাজার চেক ডিজঅনার মামলা, ৩০ হাজার ইয়াবার মামলাসহ সব মিলিয়ে ৮০ হাজারের বেশি মামলা আছে কক্সবাজার আদালতে। তাই মামলা কমাতে প্রত্যেক আইনজীবীকে একজন দায়িত্বশীল হিসেবে ভুমিকা রাখতে হবে। সেজন্য যোগ্য নেতৃত্ব এবং যোগ্য আইনের শাসকেরও প্রয়োজন আছে। আমাদের মামলার দীর্ঘসূত্রিতা কমাতে হবে। এব্যাপারে আইনজীবীদের দায়িত্বশীল আচরণ করতে হবে-কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল এসব কথা বলেন।

কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে শনিবার (৭ নভেম্বর) সকাল ১০ টায় শুরু শিক্ষানবীশ আইনজীবী প্রশিক্ষণ কর্মশালায় জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল আরো বলেন, আইনজীবীদের মধ্যে অন্যরা ডুকে এই পেশাটা নষ্ট করেছে। হতাশ হবার কারণ নেই, আপনাদের মধ্যে বিশাল সম্ভাবনা দেখতে পাচ্ছি। জাতির জনকের সুযোগ্য কন্যা এক নাগাড়ে ১২ বছর দায়িত্ব পালন করে দেশকে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।অর্থনৈতিকভাবে রাস্ট্রের অনেক উন্নতি হয়েছে। সাড়ে ৩ লক্ষ কোটি টাকার উন্নয়নের কাজ চলছে শুধু কক্সবাজারেই।

তিনি আরো বলেন, জাতির জনকের নেতৃত্বে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি। এক সাগর রক্তের বিনিময়ে ৯ মাস যুুদ্ধের পরে আমরা স্বাধীন রাষ্ট্র পেয়েছি ও সংবিধান পেয়েছি।সংবিধানে আইন শাসনের কথা বলা আছে। আইনে আশ্রয় লাভের কথাও বলা আছে।

কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এড. আ.জ.ম মঈন উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহ, মো হেলাল উদ্দিন ও দেলোয়ার হোসেন শামীম, রিসোর্সপার্সন হিসেবে বক্তব্য রাখেন-এড.মো.জাহাঙ্গীর ও এড.শিবুলাল দেব দাশ এবং আইনজীবীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-এড.সৈয়দ আলম,এড.আবুল কালাম সিদ্দিকী,এড.সাদেক উল্লাহ, এড.ফরিদুল আলম (পিপি)।

কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির ভিজিল্যান্স টিমের সার্বিক সহযোগিতায় কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির আয়োজনে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ২৫১ জন শিক্ষানবীশ আইনজীবী ও আমন্ত্রিত অতিথিদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেন, কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির ভিজিল্যান্স টিমের সদস্যরা। অনুষ্ঠানে শিক্ষানবীশ আইনজীবীদের শপথ পাঠ করান, কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইল।

কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এড. জিয়া উদ্দিন আহমদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, আইনপেশা একটি চ্যালেঞ্জিং পেশা। সবচেয়ে দুঃখজনক হলো, সঠিক সময়ে বার কাউন্সিল পরীক্ষাটি না হওয়া। সঠিক সময়ে পরীক্ষা নেওয়ার জন্য, আমরা কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির পক্ষ থেকে আবেদন করা হয়েছে। আইনজীবী না হয়ে অর্থের পিছনে দৌঁড়ালে আইনজীবী হওয়া যাবে না। জেনে শুনে নিরীহ মানুষকে আসামী করবেন না। ফাস্টক্লাস সিটিজেন হিসেবে আপনাদের দায়িত্ব,কর্তব্যবোধ
ও আচার-আচরণ অন্যপেশার লোক থেকে আলাদা হতে হবে। পরিশ্রম করেন, সাফল্য আপনাকে ধরা দেবে। কলম-সীল নিয়ে ঘুরবেন না। মুন্সীর দৌরাত্ম্যের সাথে একাত্মতা করবেন না। বিবেক বাঁধা দেয়, এমন কাজ করবেন না। আইন পেশাকে ইবাদতের মতো মনে করতে হবে। পেশাদারিত্বের চর্চা করতে হবে। ভাল ইমেজ, সুনাম অর্জন করতে হবে। একইসাথে বারের ও আদালতের নিয়ম কানুন মেনে চলার বিভিন্ন উপদেশ ও পরামর্শ প্রদান করেন বক্তারা।

অনুষ্ঠানে কক্সবাজার জেলা আইনজীবী সমিতির ভিজিল্যান্স টিমের আহবায়ক-এড.এইচ রাফাত ফিরোজ ও এড.সাইফুদ্দিন,সদস্য-এড.ইনসাফ,এড.রিদোয়ান, এড.ফয়সাল,এড.বাবলু,এড.হারেছ,এড.মামুন,এড.
জুনায়েদ,এড.শাহআলম,এড.নাহিদা ও এড.পারভিন উপস্থিত ছিলেন।

Top