izmir kizlar
porno izle sex hikaye
çorum sürücü kursu malatya reklam inönü üniversitesi taban puanları

শহরের মোহাজেরপাড়ায় ডাস্টবিন ব্যবহারের সচেতনতামুলক প্রচারণায় যুব সমাজ

received_929971460678760.jpeg

বিশেষ প্রতিবেদক।।

কক্সবাজার শহরে বৃহত্তর মোহাজেরপাড়া এলাকা পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে মাঠে নেমেছে একদল যুবক। তাদের এ মহান উদ্যেগকে স্বাগত জানিয়েছে খোদ এলাকাবাসী। তাদের এ কাজে সার্বিক সহযোগীতার হাত বাড়িয়েছে ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্যানেল (মেয়র) হেলাল উদ্দিন কবির ও ১০নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সালাহউদ্দিন সেতু।

যুব সমাজের দাবী,গৃহস্থালির বর্জ্য বর্তমানে পরিবেশের জন্য একটি বড় ধরনের ঝুঁকি হয়ে উঠেছে। এ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বিভিন্ন পয়েন্টে ২৪টি ডাষ্টবিন (ড্রাম) স্থাপন করা হয়।ফলে এলাকার জনবহুল পয়েন্টগুলো বিভিন্ন ময়লা আবর্জনার দুর্গন্ধ থেকে মুক্তি পাবে বলে আশা করেন তারা।

শুক্রবার (১০ মে) দুপুর ২টা দিকে মোহাজের পাড়া যুব সমাজের সংগঠনের ১৫-২০ জন যুবক এলাকায় বিভিন্ন পয়েন্টে ডাষ্টবিন স্থাপনের কাজে দায়িত্ব পালন করে। সেই সাথে হ্যান্ডমাইক (মেগাফোন) নিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধির
লক্ষে প্রতিটি বাসাবাড়ির সামনে লিফলেট ও ঠাঙ্গিয়ে দেয় তারা। পাশাপাশি স্থাপিত ডাষ্টবিনগুলো সঠিকভাবে ব্যবহার করার জন্য এলাকার বাসাবাড়ি, দোকান এমনকি পথচারীদেরও সচেতন করেন তারা।

ডাষ্টবিন স্থাপনের অনুষ্ঠানের এক সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাখেন, প্যানেল মেয়র হেলাল উদ্দিন কবির।

তিনি বলেন, যত-তত্র ময়লা ফেলার কারণে যেমন করে রোগের ঝুঁকি বাড়ে, তেমনিভাবে এলাকার সৌন্দর্যহানিও ঘটে। তাছাড়া,পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা একটি এলাকার মর্যাদাও বৃদ্ধি করে। আমরা যদি এ অভিযান টিকে সাফল করতে পারি, তাহলে এক সময় আমাদের পৌর শহরটা একটি পরিচ্ছন্ন শহর হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ১০নংওয়ার্ডের কাউন্সিলর সালাহউদ্দিন সেতু বলেন, আমরা এই এলাকার গর্বিত নাগরিক। সময় এসেছে দেশটাকে সুন্দরভাবে গড়ে তোলার। তাই আসুন, ভবিষ্যত প্রজন্মকে একটি সুন্দর, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন শহর উপহার দিতে সকলে মিলে একসঙ্গে কাজ করি।

তিনি আরো বলেন, মোহাজেরপাড়া যুব সমাজ সংগঠনের সদস্যরা আমার ছোট ভাইয়ের মতো। তাদের প্রধান কাজ হবে, এ বিষয়ে মানুষকে সচেতন করে তোলা। যাতে তারা যেখানে সেখানে ময়লা-আবর্জনা না ফেলে নির্দিষ্ট জায়গায় রাখা ডাষ্টবিনে ময়লা ফেলেন। শুধুমাত্র পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের দোষ দিলে হবে না। তারা একা কোন দিন এ সমস্যার সমাধান করতে পারবে না। সেজন্য আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে। নিজের এলাকার সৌন্দর্য আমাদের নিজেদের হাতে,এ বিষয়টিকে মাথায় রাখতে হবে। একমাত্র সচেতনতাই পারবে আমাদের এই শহরটাকে বদলে দিতে, নতুন রূপে সাজিয়ে দিতে।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, সমাজসেবক মেজবাহ উদ্দিন কবির, মহিউদ্দিন মিন্টু(কবির), নাজমুল হক,জয়নাল আবেদিন জয়,রুবাছুর রহমান, সানাউল্লাহ সানি,সাংবাদিক আব্দুল গফুর,এজাজ হাবিব,দেলোয়ার হোসেন, মনছুর আলম,ব্যবসায়ী জামাল, হামিদ,মোঃ মিজান,মোঃ মাহাফুজ,আব্দুল খালেক প্রমুখ ।

Top